83 views

সংখ্যা পদ্ধতি | শিক্ষক নিবন্ধন লিখিত (ICT) | পর্ব ৭.১

By | মার্চ 13, 2020
Advertisment

সংখ্যা পদ্ধতি বা Number System (নাম্বার সিস্টেম) নিয়ে ডিজিটাল লজিক অধ্যায়ের আজকের পর্বে আপনাদের সকলকে স্বাগতম। এটি বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন এর কম্পিউটার সাইন্স বিষয়ের ৭ম অধ্যায়ের একটি অংশ। আজকে দেখানো হবে ডিজিটাল লজিক।

ডিজিটাল লজিক

বরাবরের মতোই শুরুতে সিলেবাসটা দেখে নিই

সংখ্যা পদ্ধতি সিলেবাস
সংখ্যা পদ্ধতি সিলেবাস

শিক্ষক নিবন্ধনের সকল পোস্ট পেতে এখানে ক্লিক করুন।

সংখ্যা পদ্ধতি

যে পদ্ধতিতে কোন সংখ্যা প্রকাশ করা হয় তাকে সংখ্যা পদ্ধতি বলে। যে পদ্ধতিতে বিভিন্ন সংখ্যা লিখে প্রকাশ করা যায় এবং উক্ত সংখ্যাসমূহের উপর বিভিন্ন অপারেশন (+, -, *, /) প্রয়োগসহ হিসাব নিকাশ সম্পাদন করা যায় তাকেই সংখ্যা পদ্ধতি বলে। সংখ্যা পদ্ধতিসমূহ হলো

  • বাইনারী
  • অকটাল
  • ডেসিমাল
  • হেক্সাডেসিমাল

বাইনারী

  • বেস: ২
  • ব্যপ্তি: (০-১)

অকটাল

  • বেস: ৮
  • ব্যপ্তি: (০-৭)

ডেসিমাল

  • বেস: ১০
  • ব্যপ্তি: (০-৯)

হেক্সাডেসিমাল

  • বেস: ১৬
  • ব্যপ্তি: (০-F)
  • A = 10, B = 11, C = 12, D = 13, E = 14, F = 15

সংখ্যা পদ্ধতির রুপান্তর

সব থেকে জরুরি হলো সংখ্যা পদ্ধতির রুপান্তর। এমন প্রশ্ন আসবে যেখানে এক সংখ্যা থেকে অন্য সংখ্যা পদ্ধতিতে রুপান্তর করতে হবে। যেমন: বাইনারি থেকে অক্টাল বা অক্টাল থেকে ডেসিমাল ইত্যাদি। সংখ্যা পদ্ধতির কিছু নিয়ম রয়েছে যা অনুসরণ করলে সহজেই এক সংখ্যা থেকে অন্য সংখ্যায় রুপান্তর করা যায়। যেমন:

  • যদি প্রদত্ত সংখ্যা ডেসিমালে থাকে তাহলে রুপান্তর করা সব থেকে সহজ। ডেসিমাল সংখ্যা থেকে যে পদ্ধতিতে রুপান্তর করতে চাই সেই সংখ্যার বেস দিয়ে ভাগ করলে উক্ত সংখ্যায় যাওয়া সহজ। উদাহরণ: ডেসিমাল সংখ্যাকে ২ দিয়ে ভাগ করলে বাইনারি সংখ্যায় রুপান্তর করা যায়।
  • যদি সংখ্যাটি ডেসিমালে না থাকে তাহলে উক্ত সংখ্যাকে ডেসিমালে নিয়ে যেতে হবে।
  • যে কোনো সংখ্যাকে তার ডেসিমালে নিতে হলে সেই সংখ্যাকে তার বেস নাম্বার দিয়ে ক্রমান্বয়ে গুণ করলে ডেসিমালে রুপান্তর হবে।
  • এক্ষেত্রে ডান দিক থেকে সংখ্যাকে তার বেস এর পাওয়ার ০ থেকে গুণ করে যেতে হবে। যেমন: বাইনারী নাম্বারের ক্ষেত্রে সবচেয়ে ডানের সংখ্যাকে ২^০ দিয়ে গুণ করতে হবে, তার পরের সংখ্যাটি ২^১ এবং ক্রমান্বয়ে এমন করতে হবে।
  • গুণ শেষে সকল সংখ্যা যোগ করলে তার ডেসিমাল নাম্বার পাওয়া যাবে।

কম্পিউটার সাইন্সের শিক্ষার্থী হিসেবে এসকল বিষয়াবলী অবশ্যই আপনাদের জানার কথা। তবে পোস্টটি পড়ে সেগুলো ভালোভাবে ঝালাই করে নিতে পারবেন। একইসাথে বাস্তবে দেখতে হলে পোস্টের শুরুর দিকের ইউটিউব ভিডিওটি দেখতে পারেন এবং সকল আপডেট পেতে iSudip ইউটিউব চ্যানেলটি ফলো করে রাখতে পারেন। পরবর্তী বিষয় নিয়ে দেখা হবে পরের ভিডিওতে।

Facebook Comments